পাকিস্তানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে ক্যারিবিয়দের শুভ সূচনা

এএনটিভি | মো:রিয়াজ গাজী, প্রকাশিত: ৩১. মে. ২০১৯ , শুক্রবার

    আসল কাজটা সেরে রেখেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের চার পেসার- আন্দ্রে রাসেল, ওশানে টমাস, জেসন হোল্ডার ও শেলডন কট্রেল। এই চারজন মিলে ১০ উইকেট তুলে নিয়ে ১০৫ রানেই পাকিস্তানকে গুটিয়ে দিয়েছিলেন। বাকি কাজ ব্যাট হাতে ঝড় তুলে শেষ করেন ক্রিস গেইলরা। আর তাতেই চলতি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে উইন্ডিজের কাছে ৭ উইকেটে হেরেছে পাকিস্তান। তবে হেরে যাওয়া ম্যাচেও পাকিস্তানের বাঁহাতি পেসার মোহাম্মদ আমির ৩ উইকেট তুলে নিয়ে নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ রেখেছেন। ৩১ মে (শুক্রবার) নটিংহ্যামে পাকিস্তানের ছুড়ে দেওয়া ১০৬ রানের মামুলি লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুটা কিছুটা ধীরভাবেই করেছিল উইন্ডিজ। বিনা উইকেটে ৩৬ রান তোলার পর সাম্প্রতিক সময়ে দারুণ ফর্মে থাকা শাই হোপ বিদায় নেন মাত্র ১১ রান করে। তবে এরপর গেইলের ব্যাটে দেখা দেয় ক্যারিবীয় ঝড়। মাত্র ৩৩ বলে ফিফটির দেখা পান গেইল। এই ইনিংস খেলার পথে ৬টি চার ও ৩টি ছক্কায় সাজানো। এই ৩ ছক্কার প্রথমটি মেরেই একটা রেকর্ড গড়ে ফেলেছেন গেইল। এবারই শেষ বিশ্বকাপ খেলতে নামা গেইলের বিশ্বরেকর্ড গড়তে দরকার ছিল মাত্র ১টি ছক্কা। এমনিতে সব ধরনের ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি ৫১৭টি ছক্কার রেকর্ড তারই। আর আজ প্রথম ছক্কা মেরে তিনি বিশ্বকাপ সবচেয়ে বেশি ছক্কা মারার রেকর্ডও নিজের ঝুলিতে পুরে নিয়েছেন। ২০১৯ বিশ্বকাপের আগে সমান ৩৭টি ছক্কা হাঁকিয়ে বিশ্বকাপ সবচেয়ে বেশি ছক্কার যৌথ মালিক ছিলেন এবি ডি ভিলিয়ার্স ও গেইল। এখন গেইলের ছক্কা হলো ৩৯টি। ডি ভিলিয়ার্স যেহেতু অবসরে চলে গেছেন, গেইলের এই রেকর্ড এখন অনেকদিন টিকে থাকার পাশাপাশি এর সংখ্যাও বাড়বে এতে সন্দেহ নেই। গেইলের ওই ঝড় অবশ্য ফিফটির পরই থেমে গেছে। মাঝে ব্র্যাভোর উইকেট তুলে নেন আমির। তবে বাকি পথটা নিশ্চিন্তে পাড়ি দিয়ে দেন নিকোলাস পুরান ও শেমরন হেটমায়ার। ১৯ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় সাজানো ৩৪ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন পুরান। এর আগে টসে জিতে পাকিস্তানকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন। ব্যাটিং করতে নেমে মাত্র ১০৫ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। তাদের ইনিংস স্থায়ী হয়েছে মাত্র ২১.৪ ওভার। সর্বোচ্চ ২২ রান করেন ফখর জামান। সমান রান করেছেন বাবর আজমও। এছাড়া দুই অঙ্কের দেখা পেয়েছেন শুধু মোহাম্মদ হাফিজ (১৬) ও রিয়াজ (১৮)। টানা উইকেট পতনের ধারায় একসময় মনে হচ্ছিল ১০০ রানের আগেই থামবে পাকিস্তানের ইনিংস। তবে সেই লজ্জা (!) থেকে বাঁচিয়ে দিয়েছেন ১০ নম্বর ব্যাটসম্যান ওয়াহাব রিয়াজ। তার ১১ বলে ১৮ রানের ইনিংসটি বাকিদের জন্য লজ্জা দিতে যথেষ্ট। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের সর্বনিম্ন সংগ্রহ ৭৪ রান।অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওই ম্যাচে অবশ্য কোনো ফলাফল আসেনি। ১৯৯২ বিশ্বকাপে এ লজ্জায় ডুবলেও ১ পয়েন্টের অবদানেই সেবার ইতিহাস গড়ে বিশ্বকাপ জিতেছিল ইমরান খানের দল। ‘৯২ বিশ্বকাপের লজ্জায় না ডুবলেও এবার পাকিস্তান গড়লো নিজেদের বিশ্বকাপ ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্কোরের রেকর্ড। বল হাতে ৫.৪ ওভারে ২৭ রান খরচে ৪ উইকেট তুলে নিয়েছেন ওশানে টমাস। ৩ উইকেট নিয়েছেন জেসন হোল্ডার। ৩ ওভারে মাত্র ৪ রান খরচ করে ২ উইকেট তুলে নিয়েছেন আন্দ্রে রাসেল। বাকি উইকেট শেলডন কট্রেলের। ৪ উইকেট ঝুলিতে পুরে ম্যাচসেরা নির্বাচিত হয়েছেন উইন্ডিজের ওশানে টমাস।