সিলেটের নাইমকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার কথা স্বীকার করে নিল দুই কিশোর বন্ধু

এএনটিভি | নিউজ ডেস্ক, প্রকাশিত: ১৯. আগস্ট. ২০১৯ , সোমবার

মুহাম্মদ আশরাফুল খান
প্রতিনিধিঃ
সিলেটে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ছিনতাই করতে নাইম আহমেদ (১৫) নামের এক কিশোর বন্ধুকে খুন করেছে অপর দুই বন্ধু। শুক্রবার সন্ধ্যায় নগরের বালুচর এলাকার লালটিলা থেকে নাইম আহমেদের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে আম্বরখানা ফাঁড়ি পুলিশ।
নাইম বিয়ানীবাজার উপজেলার আলবান্না এলাকার আব্বাস উদ্দিনের ছেলে। পরিবারের সঙ্গে বর্তমানে সে নগরের বালুচর এলাকার সোনাই মিয়ার কলোনিতে বসবাস করতো। নির্মম এ হত্যার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে নাইমের বন্ধু রোকন ও পারভেজ নামের দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।
আটক রোকন নগরের মিরাবাজার এলাকার ও পারভেজ নগেরর হাজারীবাগ এলাকার শহিদ মিয়ার কোলোনীর বাসিন্দা। আটকরাও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাচালক বলে জানিয়েছে পুলিশ।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার অটোরিকশা নিয়ে বের হওয়ার পর আর বাসায় ফেরেনি নাইম। রাতে তার বাবা আব্বাস উদ্দিন বিমানবন্দর থানায় নিখোঁজের ঘটনায় একটি জিডি করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে নাইমের দুই বন্ধু রোকন উদ্দিন (১৮) ও পারভেজ আহমদকে (১৯) আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে তারা নাইমকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার কথা স্বীকার করে। তাদের দেয়া তথ্য মতে লালটিলা থেকে নাইমের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে তার ব্যবহৃত ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাটি এখনও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।
এ বিষয়ে মহানগর পুলিশের এয়ারপোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদত হোসেন বলেন, নাইম বৃহস্পতিবার থেকে নিখোঁজ ছিল। তার বাবা বৃহস্পতিবার রাতেই থানায় জিডি করেন। এই জিডির সূত্র ধরে নাইমের দুই বন্ধু রোকন ও পারভেজকে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে তারা নাইমকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যার কথা স্বীকার করে।
তিনি বলেন, আটকদের তথ্য অনুযায়ী লালটিলা থেকে নাইমের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নাইমের সঙ্গে থাকা অটোরিকশাটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।